Templates by BIGtheme NET
Home / বিদেশ / সংসদে বিক্ষোভের তীব্রতা বাড়াবে কংগ্রেস

সংসদে বিক্ষোভের তীব্রতা বাড়াবে কংগ্রেস

‘কারো কারো খামখেয়ালিপনা ও মর্জিতেও এখন অচল থাকছে সংসদ। পণ্য পরিষেবা বিল (জিএসটি) বলে নয়, আসল কথা মানুষের স্বার্থের সঙ্গে জড়িত বিলগুলো পাশ হচ্ছে না।’ এভাবে দেশটির প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি শুক্রবার ভারতের কংগ্রেস নেতৃত্বকে খোঁচা দিয়ে বক্তব্য দিয়েছেন।

তার একদিন পরেই প্রধানমন্ত্রীর সেই কটাক্ষ তাচ্ছিল্যের সঙ্গে উড়িয়ে দিয়ে কংগ্রেস সভাপতি সোনিয়া গান্ধী বলেন, ‘উনি (মোদি) যা পারেন বলুন!’

কৌশলগত কারণে কংগ্রেস ঠিক করেছে তারা আর সংসদে ন্যাশনাল হেরাল্ড মামলা নিয়ে সরব হবে না। কিন্তু একই সঙ্গে তারা এটাও স্পষ্ট করে দিয়েছে যে, সোমবার থেকে সংসদে বিক্ষোভের তীব্রতা তারা বাড়াবে। ছুটির দিনগুলো বাদে এবারের অধিবেশনের আর মাত্র সাতদিন বাকি। অর্থাৎ চলতি অধিবেশনে কোনো বিল পাশ হওয়ার সম্ভাবনা প্রায় নেই বললেই চলে।

এদিকে, জিএসটি নিয়ে চেষ্টা অব্যাহতই রেখে চলেছে সরকার। বিলটি নিয়ে কংগ্রেসের সঙ্গে আলোচনার জন্য সোমবার বৈঠক ডেকেছেন কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী অরুণ জেটলি। কিন্তু ঘরোয়া আলোচনায় কংগ্রেস নেতারা যে মনোভাব দেখাচ্ছেন, তাতে  পরিষ্কার যে ন্যাশনাল হেরাল্ড বিতর্কের পর এখন জিএসটি বিল নিয়ে আর কোনো আপসে রাজি নন তারা। জিএসটি-র সর্বোচ্চ হার ১৮%-এ বেঁধে দেয়ার শর্ত না মানলে তারা বিলে সম্মতি দেবেন না।

কংগ্রেসের কৌশল নির্ধারণের বৈঠকে শনিবার সকালে সিদ্ধান্ত হয়েছে, সংসদে তারা ন্যাশনাল হেরাল্ড মামলা নিয়ে সরব হবে না। এই মামলায় সোনিয়া ও কংগ্রেসের সহ-সভাপতি রাহুল গান্ধীসহ দলের ছ’জন নেতার বিরুদ্ধে অভিযোগ রয়েছে।

কংগ্রেস নেতারা মনে করছেন, সংসদে এ নিয়ে সরব হলে বিজেপি প্রচার করবে যে, সোনিয়া-রাহুলের ব্যক্তিগত সঙ্কটের জন্যই সংসদ অচল করা হচ্ছে। যে কারণে এ দিনের বৈঠকে সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে, ন্যাশনাল হেরাল্ড মামলা নিয়ে যা কিছু করা ও বলা হবে সব সংসদের বাইরে।

About admin

ăn dặm kiểu NhậtResponsive WordPress Themenhà cấp 4 nông thônthời trang trẻ emgiày cao gótshop giày nữdownload wordpress pluginsmẫu biệt thự đẹpepichouseáo sơ mi nữhouse beautiful