Templates by BIGtheme NET
Home / রাজনীতি / যুক্তরাজ্যের ভ্রমণ সতর্কতা: ‘এখনও বিএনপির অবরোধ চলছে’!

যুক্তরাজ্যের ভ্রমণ সতর্কতা: ‘এখনও বিএনপির অবরোধ চলছে’!

বাংলাদেশে গেল জানুয়ারিতে বিএনপি নেতৃত্বাধীন ২০ দলীয় জোটের ডাকা অবরোধ এখনও বহাল আছে বলে মনে করে যুক্তরাজ্য। দেশটির পররাষ্ট্র দপ্তরের ওয়েবসাইটে নিজেদের নাগরিকদের বাংলাদেশ ভ্রমণে দেয়া এক সতর্ক বার্তায় বলা হয়েছে বাংলাদেশে সরকার ও বিরোধীদলের উত্তেজনা বহাল আছে এবং সহিংসতার আশঙ্কা আছে।বলা হয়েছে সন্ত্রাসবাদের হুমকির কথাও।

এর তরফে এ বিষয়ে মন্তব্য জানতে চাওয়া হয় বিএনপি নেতা ব্রিগেডিয়ার জেনারেল(অবঃ)হান্নান শাহ ও দলটির চেয়ারপার্সনের উপদেষ্টা শামসুজ্জামান দুদুর কাছে। টেলিফোনে এ বিষয়ে মন্তব্য করতে অস্বীকার করেন হান্নান শাহ। তবে শামসুজ্জামান দুদু বলেন, ‘বিএনপি এখনও আন্দোলনের মধ্যেই আছে।’

তিনি বলেন, ‘আন্দোলন সফল না হওয়া পর্যন্ত চলবে। আর এর জন্য আমাদের আন্দোলন আরো কঠোর হবে। প্রয়োজনে অবরোধ আসতে পারে।’ তবে সব কিছুই দেশের অবস্থার উপর নির্ভর করবে বলে মনে করেন তিনি।

sdbgs

গেল ৯ই অক্টোবর ওয়েবসাইটে আপলোড করা যুক্তরাজ্যের ওই সতর্কবার্তায় বলা হয়, ‘বাংলাদেশে সরকার ও বিএনপি নেতৃত্বাধীন ২০ দলীয় জোটের মধ্যকার উত্তেজনা অব্যাহত রয়েছে। ২০১৫ সালের জানুয়ারিতে বিরোধীরা দেশব্যাপী সড়ক, রেলপথ ও নৌপথে অবরোধ শুরু করে। একইসঙ্গে হরতালও পালিত হয়। কয়েক মাস ধরে চলা হরতাল-অবরোধে গণপরিবহনে আগুন দেয়াসহ বিভিন্নভাবে বেশ কয়েকজনের প্রাণহানি হয়। যদিও এখনও আনুষ্ঠানিকভাবে অবরোধ তুলে নেয়া না হলেও গেল এপ্রিল থেকে রাজনৈতিক উদ্দেশ্য প্রণোদিত বিশৃঙ্খলা ও সহিংসতার মাত্রা কমেছে।’

সেসময় ২০ দলীয় জোট নেত্রী ও বিএনপি চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়া এক সংবাদ সম্মেলনে অবরোধ প্রত্যাহারের ঘোষণা সরাসরি না দিয়ে স্বীকার করেন অবরোধের কার্যকারিতা নেই।

যুক্তরাজ্যের সতর্ক বার্তায় বাংলাদেশে হুটহাট সহিংস পরিস্থিতি তৈরি হয়ে যেতে পারে বলে আশঙ্কা প্রকাশ করা হয়েছে। বার্তায় বলা হয়, `বিক্ষোভ খুব দ্রুত সহিংস হয়ে উঠতে পারে এবং আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী সংস্থার সদস্যদের সঙ্গে বিক্ষোভকারীদের সংঘর্ষ হতে পারে। সহিংস হামলা, অগ্নিসংযোগ এবং ভাংচুর দেশজুড়ে বিশেষ করে নগর ও শহরে হঠাৎ করে ছড়িয়ে পড়তে পারে।’

asffa

বাংলাদেশে সন্ত্রাসবাদের হুমকি রয়েছে বলেও উদ্বেগ জানানো হয় ওই সতর্কবার্তায়। দুই বিদেশি নাগরিককে হত্যার ঘটনায় আইএস দায় স্বীকার করেছে বলে দাবি করা হয় ওই বিবৃতিতে। একইসঙ্গে পশ্চিমাদের লক্ষ্য করে আরও হামলা হতে পারে বলে আশঙ্কা প্রকাশ করা হয়। আর তাই যেসব হোটেল কিংবা কনফারেন্স সেন্টারে পশ্চিমারা জমায়েত হয় সেখানে চলাচল সীমিত করার জন্য ব্রিটিশ নাগরিকদের পরামর্শ দেয়া হয়েছে।

About admin

ăn dặm kiểu NhậtResponsive WordPress Themenhà cấp 4 nông thônthời trang trẻ emgiày cao gótshop giày nữdownload wordpress pluginsmẫu biệt thự đẹpepichouseáo sơ mi nữhouse beautiful