Templates by BIGtheme NET
Home / সারাদেশ / মৌলভীবাজার ও কুষ্টিয়ায় চলছে গণিত উৎসব

মৌলভীবাজার ও কুষ্টিয়ায় চলছে গণিত উৎসব

শীতের কনকনে ঠান্ডা উপেক্ষা করে আজ শনিবার মৌলভীবাজার ও কুষ্টিয়ায় চলছে ডাচ্-বাংলা ব্যাংক-প্রথম আলো আঞ্চলিক গণিত উৎসব। ‘গণিত শেখো স্বপ্ন দেখো’ স্লোগানে এবারের উৎসবের অঙ্গীকার হলো ‘গণিতের মাধ্যমে জয় করতে হবে পৃথিবীকে’।

প্রথম আলোর আঞ্চলিক কার্যালয়প্রতিনিধির পাঠানো খবর:

মৌলভীবাজার: শীতের সকালে গণিতপ্রেমীদের পদচারণায় মুখরিত মৌলভীবাজারের আলী আমজাদ সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় প্রাঙ্গণ। সকাল সাড়ে নয়টায় জাতীয় সংগীতের মধ্য দিয়ে গণিত উৎসবের উদ্বোধন করেন বিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষিকা হাফিজা খাতুন।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে আন্তর্জাতিক গণিত অলিম্পিয়াডের পতাকা উত্তোলন করেন মৌলভীবাজার সরকারি কলেজের পদার্থ বিজ্ঞান বিভাগের অধ্যাপক সৈয়দ মুজিবুর রহমান। গণিতের পতাকা উত্তোলন করেন প্রথম আলোর মৌলভীবাজার প্রতিনিধি আকমল হোসেন। জাতীয় সংগীত পরিবেশন করেন প্রথম আলো বন্ধুসভার মৌলভীবাজারের সদস্যরা।

সকাল ১০টায় শিক্ষার্থীদের পরীক্ষা শুরু হয়। সোয়া ১১টা পর্যন্ত তা চলে। হবিগঞ্জ ও মৌলভীবাজার জেলার প্রায় ৬০০ শিক্ষার্থী চারটি বিভাগে পরীক্ষার জন্য নিবন্ধন করেছেন। পরীক্ষা শেষে প্রশ্নোত্তর পর্ব চলবে। এরপর পুরস্কার বিতরণী।শীতের সকালে মায়ের হাত ধরে গণিত উৎসবে আসে এক খুদে শিক্ষার্থী। ছবিটি কুষ্টিয়া কুষ্টিয়া পুলিশ লাইনস স্কুল অ্যান্ড কলেজ প্রাঙ্গণ থেকে তোলা। ছবি: এহসান-উদ-দৌলা, যশোর

কুষ্টিয়া: আগের রাতের বৃষ্টিতে শীত যেন জেঁকে বসেছে। কনকনে শীতকে তুড়ি মেরে উড়িয়ে দিয়ে প্রায় এক হাজার খুদে গণিতপ্রেমী জড়ো হয়েছে কুষ্টিয়া পুলিশ লাইনস স্কুল অ্যান্ড কলেজে।
সকাল সাড়ে নয়টার দিকে কুষ্টিয়া বন্ধুসভার সাংস্কৃতিক দলের সমবেত কণ্ঠে জাতীয় সংগীতের মধ্য দিয়ে শুরু হয় উৎসব। এ সময় জাতীয় পতাকা উত্তোলন করেন কুষ্টিয়ার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার জয়নুল আবেদীন। জাতীয় গণিত অলিম্পিয়াডের পতাকা উত্তোলন করেন পুলিশ লাইনস স্কুল অ্যান্ড কলেজের অধ্যক্ষ হাসানুল সিরাজী। আর আন্তর্জাতিক গণিত অলিম্পিয়াডের পতাকা উত্তোলন করেন ডাচ-বাংলা ব্যাংকের কুষ্টিয়া শাখার কর্মকর্তা ইয়াহিয়া খান। এরপর অতিথিরা শিক্ষার্থীদের সঙ্গে নিয়ে খেলার মাঠে বেলুন উড়িয়ে উৎসবের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন।
এ সময় শুভেচ্ছা বক্তব্যে কুষ্টিয়ার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার জয়নুল আবেদীন বলেন, ‘আমদের সকল চিন্তায় গণিত (হিসাব নিকেশ) থাকে। আমাদের সকাল শুরু হয় গণিত দিয়ে, রাতও শেষ হয় গণিত দিয়ে। বলতে গেলে মৃত্যু পর্যন্ত গণিতের ব্যবহার। এটাকে জয় করতে পারলে সকলের পথ চলা সহজ হবে।’
সকাল ১০টার দিকে শিক্ষার্থীরা এক ঘণ্টা ১৫ মিনিটের পরীক্ষায় অংশ নেন। পরীক্ষা শেষে উৎসব মঞ্চে হবে শিক্ষার্থীদের প্রশ্নোত্তর পর্ব। মধ্যাহ্ন বিরতির পর বিজয়ীদের নাম ঘোষণা করা হবে।পরীক্ষার হলে গণিতের সমস্যা সমাধানে মগ্ন এক শিক্ষার্থী। ছবিটি কুষ্টিয়া কুষ্টিয়া পুলিশ লাইনস স্কুল অ্যান্ড কলেজ কেন্দ্র থেকে তোলা। ছবি: এহসান-উদ-দৌলা, যশোর

About admin

ăn dặm kiểu NhậtResponsive WordPress Themenhà cấp 4 nông thônthời trang trẻ emgiày cao gótshop giày nữdownload wordpress pluginsmẫu biệt thự đẹpepichouseáo sơ mi nữhouse beautiful