Templates by BIGtheme NET
Home / বিনোদন / ভারতে নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছেন আমির

ভারতে নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছেন আমির

ভারতে গরুর মাংস বিতর্ক থেকে শুরু করে বিদ্যমান অসহিষ্ণুতা নিয়ে বলিউড বাদশাহ শাহরুখের পর এবার মুখ খুললেন মিস্টার পারফেকশনিস্ট আমির খান।

সোমবার ভারতে ক্রমবর্ধমান অসহিষ্ণুতা নিয়ে সরাসরি কথা বলেন এ বলিউড তারকা।

ভারতে থাকতে নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছেন উল্লেখ করে আমির জানান, ধর্মীয় অসহিষ্ণুতার এ পরিবেশে দেশ ছাড়তে চাইছেন তার স্ত্রী কিরণ রাও। আমির বলেন, প্রথমবারের মতো এ ধরনের কথা বলছে কিরণ। নিজের সন্তানদের নিরাপত্তা নিয়েও ভয় পাচ্ছে সে।

এর আগে চলতি নভেম্বরের শুরুর দিকে ভারতে ক্রমবর্ধমান ধর্মীয় অসহিষ্ণুতা বিষয়ে মুখ খোলেন শাহরুখ খান। এর পর অবশ্য তাকে নিয়ে সমালোচনায় মুখর হয় বিজেপি ও আরএসএস।

কাল ভারতের রামনাথ গোয়েনিকা অ্যাওয়ার্ড প্রদান অনুষ্ঠানে আমির বলেন, ‘ব্যক্তি হিসেবে, এদেশের নাগরিক হিসেবে, দেশে কী ঘটছে তা আমরা খবরের কাগজে পড়ি, টিভিতে দেখি। এসব দেখে সংশয়ে রয়েছি। সেটা অস্বীকার করব না।’

আমিরের মতে, গত ছয় থেকে আট মাসে ভারতে নিরাপত্তাহীনতা ও ভয়ের সংস্কৃতি বৃদ্ধি পেয়েছে, এ কারণে তিনি আতঙ্কিত। কাজ ও মন্তব্যের ক্ষেত্রে বরাবরই হিসেবি আমির বলেন, এসব বিষয়ে কিরণ রাওয়ের সঙ্গে যখন কথা হয়, তখন কিরণ স্থায়ীভাবে বিদেশে যাওয়ার পরামর্শ দেন। কিরণের জন্য এটি অনেক বড় কথা। সে নিজের সন্তানদের জন্য চিন্তিত। ভবিষ্যতে কী পরিবেশ হবে তা নিয়েই তার আশঙ্কা।

অসহিষ্ণুতার প্রতিবাদে লেখক-সাহিত্যিক- চলচ্চিত্র পরিচালকসহ গুণিজনের বিভিন্ন পুরস্কার ফিরিয়ে দেওয়ার প্রতীকী প্রতিবাদকে সমর্থন করে আমির বলেন, ইতিহাস লেখক ও বিজ্ঞানীদের মত প্রকাশের নির্দিষ্ট পন্থা রয়েছে। পুরস্কার ফিরিয়ে দেওয়ার তার মধ্যে একটি। সবারই প্রতিবাদের অধিকার আছে। আর তা অহিংস হলে আমি সমর্থন করি।

ভারতের বর্তমান বেজেপি সরকারের সমালোচনা করে পদ্মশ্রী ও পদ্মভূষণ পুরস্কার পাওয়া আমির বলেন, গুরুত্বপূর্ণ হলো, যারা ক্ষমতায় আছেন তারা এ ধরনের ঘটনার কঠোর সমালোচনরা করবেন। আমরা তাদেরকে পাঁচ বছরের জন্য নির্বাচন করিনি, তাদের কাছে অনেক প্রত্যাশা। সেটা না হলে, মনের মধ্যে নিরাপত্তাহীনতা চেপে বসে।

যেকোনো ধর্মীয় মৌলবাদ নিয়ে বরাবরই আক্রমণাত্মক আমির খান প্রযোজকদের কাছে সফল ছবি উপহার দেওয়ার মেশিন হিসেবে পরিচিত। ধর্মীয় গোঁড়ামি ও অতি বারাবারি নিয়ে গত বছর আনুশকা শর্মার সঙ্গে তার ছবি পিকু মুক্তি পায়।

সম্প্রতি ফ্রান্সের রাজধানী প্যারিসের সন্ত্রাসী হামলা নিয়েও এদিন কথা বলেন ‘থ্রি ইডিয়টস’ তারকা। সন্ত্রাসের সঙ্গে ধর্মকে মিলিয়ে ফেলার বিপদের বিষয়টি উল্লেখ করে আমির বলেন, আমি মনে করি না যে কোনো ধর্ম মানুষ হত্যার শিক্ষা দেয়। কেউ হিংসার আশ্রয় নিলেই আমরা প্রথম যে ভুলটা করি তা হল, একে একটা ধর্মীয় লেবাস পরিয়ে দেই। হয় সে হিন্দু নয়তো মুসলিম মৌলবাদী হিসেবে পরিচিত হয়।

বর্তমানে ভারতের সেন্সর বোর্ডের কর্মকাণ্ডেরও সমালোচনা করেন আমির খান। তার মতে, এক জন পূর্ণবয়স্ক মানুষ কী দেখবে তা তাকেই নির্ধারণ করা উচিত।

About admin

ăn dặm kiểu NhậtResponsive WordPress Themenhà cấp 4 nông thônthời trang trẻ emgiày cao gótshop giày nữdownload wordpress pluginsmẫu biệt thự đẹpepichouseáo sơ mi nữhouse beautiful