Templates by BIGtheme NET
Home / অন্যান্য / বাবা দিবসে সকল বাবার প্রতি শ্রদ্ধা

বাবা দিবসে সকল বাবার প্রতি শ্রদ্ধা

বাবা শব্দটার সঙ্গে জড়িয়ে থাকে অনেক শব্দহীন বাক্য। বাবা বাড়িতে সব থেকে কম কথা বলা, মেজাজী, রাশভারী মানুষ। ভালোবাসার জায়গাটাও তার জন্য বেশি কিন্তু বলা হয়ে ওঠে না।

 

বাবাকে নিয়ে ফেসবুকে অনেকেই নানা ধরনের স্ট্যাটাস দিয়ে থাকেন। যেমন: আমি যখন ঘুমুতে যাই তখন কেউ ক্লান্ত হয়ে কাজে বের হয়, একটি গাছ তার সর্বস্ব দিয়ে আমাদের ফল প্রদান করে আর বাবা তার সেই ফলটি তার সন্তানের জন্য রেখে দেন, পৃথিবীতে অনেক খারাপ মানুষ হয় কিন্তু খারাপ বাবা হয় না।

 

সত্যি তো। বাবা তার সবটুকু দিয়ে তার সন্তানের জন্য করেন। একজন বাবার মূল সম্পদই হচ্ছে তার সন্তান। আর সেই সন্তানকে মানুষের মতো মানুষ করার জন্য একজন বাবা কী না করেন।

 

রাজধানীর একটি বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী আফরোজা জানান, বাবা মারা যাওয়ার কিছুদিন আগে সে স্বপ্ন দেখে অনেক ঝড় হচ্ছে। আফরোজা, তার মা, ছোট বোন, বড় ভাই সবাই সেখানে ছিল। ছিল না তাদের বাবা। সবাই একটি ঘরে আশ্রয় নিয়েছিলেন কিন্তু সেই ঘরের ছাদ ছিল না। সবাই বৃষ্টিতে ভিজে যাচ্ছিলেন।

 

বাবা মারা যাওয়ার পর আফরোজার অনুভূতি এখন এমন যে, বাবা হচ্ছেন মাথার ওপরের ছাদ। আমাদের সব থেকে বড় আশ্রয় হচ্ছেন বাবা। বাবা সব সমস্যা থেকে আমাদের রক্ষা করেন, সব সময় পাশে এসে দাঁড়ান।

 

আমাদের জীবনে সামনে এগিয়ে যাওয়ার সাহস হচ্ছেন বাবা। ভবিষ্যতের রাস্তায় যাত্রা শুরু করার ক্ষেত্রে বাবা হচ্ছেন অকৃত্রিম ভালোবাসায় তৈরি শক্তির লাঠি। যেটাকে আঁকড়ে ধরে আমরা পার করে দেই অনেকটা পথ।

 

বাবা নামের এই মানুষটি পৃথিবীতে সবার বেশিদিন থাকে না।  ঢাকা মহিলা কলেজের একাদশ শ্রেণীর ছাত্রী তাহেরা সুলতানার বক্তব্য, আব্বু মারা যাওয়ার পর খুব অসহায় বোধ করতাম। রাস্তায় কোনো ছেলে টিজ করলে বাসায় ফিরে বলতে পারতাম না। আবদারগুলোও কেমন জানি নিজের ভেতরে রয়ে যেতে থাকে। বাড়িতে দাদা, চাচা সবাই আছে কিন্তু বাবার জায়গা কেউ নিতে পারে না। তাই সেটা আদরের হোক বা শাসনের হোক।

 

বাবা মা দুজনেই সন্তানের ভালো চান। আদর ভালোবাসার দিক থেকে দুজনেই সমান কিন্তু শাসনের কথাতে আমাদের বাবার মুখটাই আগে মনে পড়ে। বাড়িতে সব থেকে রাশভারী মানুষ বাবা। কিন্তু কখনো ভেবে দেখেছেন কী, যে মানুষটা সারাদিন কষ্ট করে ক্লান্ত হয়ে বাড়িতে ফিরলেন তার সেই ক্লান্তি কাদের জন্য। বাবা হয়ত অল্পতে রেগে যান আর তাই আমরা বাবার সঙ্গে কথা কম বলি কিন্তু দেখবেন যে রাতে আপনার অনেক জ্বর ছিল আর আপনার মা মাঝরাতে আপনার পাশে ঘুমিয়ে গেছিলেন তখন বাবা এসে আপনার জলপট্টিটা পাল্টে দিয়েছিলেন।

 

সময়ের আধুনিকতায় মায়েদের পাশাপাশি বাবারাও এখন সন্তানের সঙ্গে বন্ধুর মতোই মেশেন। কথায় বলে মেয়েদের সঙ্গে বাবার সখ্যতা বেশি হয়। তবে বর্তমানের বাবারা তাদের ছেলে মেয়ে উভয়ের কাছেই বন্ধুর মতো।

 

আজ জুন মাসের তৃতীয় রোববার অর্থাৎ বাবা দিবস। বাবাকে ভালোবাসা জানাতে কোনো বিশেষ সময়ের প্রয়োজন পরেনা, তবুও আজ বাবা দিবস উপলক্ষে তা সহজে প্রকাশ করাটা হতে পারে দারুন একটা উপায়। বাবাকে ভালোবাসি কথাটা হয়তো আমাদের মনের মধ্যেই থাকে, তা প্রকাশ করা হয়না। তাই দিবসটি উপলক্ষে নানা ভাবেই কিন্তু তা প্রকাশ করতে পারেন।

 

বাবা দিবসে সকল বাবাদের প্রতি রইলো ভালোবাসা ও শ্রদ্ধা। তবে বাবাকে শ্রদ্ধা বা ভালোবাসা জানানোর জন্য শুধু একটি বিশেষ দিন নির্ধারণ করে নয়, বরঞ্চ আসুন চেষ্টা করি যেন প্রত্যেকটা দিনই হয়ে উঠে মা-বাবার জন্য বিশেষ।

 

About Tareq Hossain

ăn dặm kiểu NhậtResponsive WordPress Themenhà cấp 4 nông thônthời trang trẻ emgiày cao gótshop giày nữdownload wordpress pluginsmẫu biệt thự đẹpepichouseáo sơ mi nữhouse beautiful