Templates by BIGtheme NET
Home / বিদেশ / প্রশ্নফাঁসের অভিযোগ কলকাতাতেও!

প্রশ্নফাঁসের অভিযোগ কলকাতাতেও!

প্রশ্নপত্র ফাঁসের অভিযোগ মাথায় নিয়ে কলকাতায় অনুষ্ঠিত হয়েছে প্রাথমিকের শিক্ষক নিয়োগের পরীক্ষা টিচার্স এলিজিবিলিটি টেস্ট বা টেট। প্রায় ২৩ লাখ পরীক্ষার্থী এবার ওই পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করেছেন।

কলকাতাভিত্তিক সংবাদমাধ্যম আনন্দবাজার জানায়, এ বছর এই পরীক্ষা হওয়ার কথা ছিল ৩০ আগস্ট। নিয়ে যাওয়ার পথে এক প্যাকেট প্রশ্নপত্র বাস থেকে উধাও হয়ে যাওয়ায় তা পিছিয়ে যায়।

পত্রিকাটি জানায়, এ দিনও পরীক্ষা শুরুর ৩০ মিনিট আগে সংবাদমাধ্যম এবিপি আনন্দের অফিসে এমন একটি প্রশ্নপত্র এসে পৌঁছায়, যার সঙ্গে আসলের যথেষ্ট মিল রয়েছে বলে পরীক্ষা শেষে দাবি করেছেন পরীক্ষার্থীদের বড় অংশ। প্রসঙ্গত, টেট পরীক্ষার্থীরা প্রশ্নপত্র নিয়ে হল থেকে বেরোতে পারেন না।

যদিও রাজ্য সরকারের তরফে দাবি করা হয়, এ দিনের পরীক্ষাপর্ব নির্বিঘ্নে সম্পন্ন করতে ঢালাও নিরাপত্তার আয়োজন ছিল।

এমতাবস্থায় প্রশ্নপত্রের ধাঁচে পাওয়া ওই কাগজের প্রতিলিপি গড়িয়াহাট থানায় জমা দিয়ে এবিপি আনন্দের তরফে অভিযোগ দায়ের করা হয়। থানা তা পাঠিয়ে দেয় শিক্ষা দফতরে। এবিপি আনন্দের তরফে কাগজের প্রতিলিপি রাজ্যের শিক্ষা-সচিবকেও পাঠানো হয়েছে। সরকারের তরফে অবশ্য প্রশ্ন ফাঁসের সম্ভাবনা উড়িয়ে দেওয়া হয়েছে।

জানানো যেতে পারে, এ দিন পরীক্ষা শুরুর দশ মিনিটের মধ্যে টেট-প্রশ্নের প্রতিলিপি হোয়াটসঅ্যাপেও ছড়িয়ে পড়ে। তার সঙ্গে গড়িয়াহাট থানায় জমা পড়া প্রশ্ন এক। এ দিন বিকেলে সুরেন্দ্রনাথ কলেজ থেকে পরীক্ষা দিয়ে বেরিয়ে আসা এক পরীক্ষার্থীকে মোবাইলে তা দেখালে তিনি হতবাক হয়ে যান। ‘আমরা তো প্রশ্নপত্র বাইরে আনতে পারিনি! তা হলে আপনার কাছে এল কী ভাবে?’ আক্ষেপের সাথে এ কথা জিজ্ঞাসা করে সে।

হলের ভিতরে মোবাইল ফোন নিষিদ্ধ হওয়া সত্ত্বেও এমনটা কী ভাবে ঘটল, পরীক্ষার্থীদের অনেকে তা ভেবে পাচ্ছেন না। ওদের আশঙ্কা, মোবাইল মারফত উত্তরও হয়তো সংশ্লিষ্ট পরীক্ষার্থীদের কাছে পৌঁছে গিয়েছিল।

পুরো বিষয়টি সম্পর্কে শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায় মুখ খুলতে চাননি।

About admin

ăn dặm kiểu NhậtResponsive WordPress Themenhà cấp 4 nông thônthời trang trẻ emgiày cao gótshop giày nữdownload wordpress pluginsmẫu biệt thự đẹpepichouseáo sơ mi nữhouse beautiful