Templates by BIGtheme NET
Home / শিক্ষা / পৃথিবীর কারণে ছোট হয়ে যাচ্ছে চাঁদ

পৃথিবীর কারণে ছোট হয়ে যাচ্ছে চাঁদ

‘ছোট হয়ে আসছে পৃথিবী’—বিজ্ঞান দূরকে নিকটে আনছে যতো, ততোই একথা সত্য হয়ে উঠেছে। কিন্তু বিজ্ঞানীরা বলছেন, পৃথিবী নয়, আক্ষরিক অর্থে চাঁদই ক্রমশ ছোট হয়ে আসছে। আর পৃথিবী থেকে দিনকে দিন সরে যাচ্ছে দূরে। আর এজন্য নাকি পৃথিবীই দায়ী। সোজা কথায় পৃথিবীর মাধ্যাকর্ষণ বল চাঁদের ওপর প্রচণ্ড প্রভাব বিস্তার করে চলেছে। ফলে ক্রমশ দূরে সরে গিয়েও পৃথিবীর প্রচণ্ড আকর্ষণ থেকে নিস্তার পাচ্ছে না চাঁদ।

জিওলজি জার্নালে সম্প্রতি প্রকাশিত এক গবেষণার ফলাফলে বলা হয়েছে, চাঁদের আকার ক্রমশ ছোট হয়ে যাওয়ার জন্য দায়ী চাঁদের বহির্ভাগের ওপর পৃথিবীর মাধ্যাকর্ষণ বলের মাত্রাতিরিক্ত প্রভাব। আর সেটা হচ্ছে মূলত পৃথিবীতে সৃষ্ট জোয়ার ভাটার টানে: ‘… tidal forces ‘contribute significantly to the current stress state of the lunar crust.’

এর ফলে চাঁদের উপরিভাগে জন্ম নিয়েছে কম করে হলেও তিন হাজারটি ফাটল ও আইল (ridges) । আর এগুলো সব জায়গায় সমানভাবে বিন্যস্থ না হওয়ায় চাঁদের আকারটাই হয়ে পড়ছে আরো বেশি এবড়ো খেবড়ো।

গবেষক দলটির ভাষায়, ‘কিছু একটা বাইরে থেকে চাঁদের ওপর নিজের প্রচণ্ড প্রভাব ছড়িয়ে দিচ্ছে। আর এই ‘কিছু একটা’ হচ্ছে পৃথিবীর জোয়ার ভাটা।যুক্তরাষ্ট্রের মহাকাশ সংস্থা ‘নাসা’র লুনার রিকনাইসেন্স অরবিটার (এলআরও) নামক নভোযানের ক্যামেরায়ও এর প্রমাণ মিলেছে।

নাসা এ ব্যাপারে এক বিবৃতি দিয়ে বলেছে, পৃথিবীর মাধ্যাকর্ষণ বলের কারণে চাঁদের উপরিভাগে যেসব চ্যুতি বা ফাটলের সৃষ্টি হয়েছে সেগুলোর একেকটির দৈর্ঘ্য অবশ্য ১০ কিলোমিটারের বেশি নয়। চাঁদের ভেতরটা এখনও প্রচণ্ড উত্তপ্ত হওয়ায় এটি যতো ঠাণ্ডা হচ্ছে ততই এর উপরিভাগে সৃষ্টি হচ্ছে ভাঁজ আর সংকোচন।

আর এর সঙ্গে যোগ হচ্ছে পৃথিবীর প্রবল টান। এতে করে  চাঁদের বহির্ভাগটা ক্রমশ দুমড়ানো মোচড়ানো চেহারা পাচ্ছে। চাঁদের আকারটাই হয়ে পড়ছে ছোট আর
সংকুচিত: ‘‘With the cooling of the interior and the solidification of the liquid outer core, the total volume of the moon decreases, leading to the “shrink.”

About admin

ăn dặm kiểu NhậtResponsive WordPress Themenhà cấp 4 nông thônthời trang trẻ emgiày cao gótshop giày nữdownload wordpress pluginsmẫu biệt thự đẹpepichouseáo sơ mi nữhouse beautiful