Templates by BIGtheme NET
Home / খেলাধুলা / পুরো সিরিজেরই ‘মান বাঁচিয়েছেন’ রাহানে

পুরো সিরিজেরই ‘মান বাঁচিয়েছেন’ রাহানে

দিল্লি টেস্টের পুরো আলোটা কেড়ে নিয়েছিল দক্ষিণ আফ্রিকা দল। ১৪৪ ওভার খেলে মাত্র ১৪৩ রান করে দিল্লি টেস্ট বাঁচানোর প্রাণান্তকর এক চেষ্টা চালিয়েছিলেন ডি ভিলিয়ার্স-আমলারা। প্রায় আড়ালেই চলে গিয়েছে অজিঙ্কা রাহানের জোড়া সেঞ্চুরির গল্প। অথচ এই জোড়া সেঞ্চুরিই কিন্তু মান বাঁচিয়েছে দুই দলের। আরও স্পষ্ট করে বললে, পুরো সিরিজেরই। রাহানে না থাকলে যে ‘লজ্জাকর’ এক ইতিহাসের সঙ্গী হতো দুই দল। ইতিহাসের প্রথম সেঞ্চুরিবিহীন চার টেস্টের সিরিজের একমাত্র উদাহরণ হয়ে যেত এটি। সেটিও কিনা ব্যাটিং-দেবতাদের তীর্থভূমি ভারতে!

ভারতে রান খরার এমন দৃশ্য অবশ্যই বিরল। ভারতের মাটি মানেই রান উৎসব, এমন দৃশ্যেই সবাই অভ্যস্ত। ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে ১৯৪৮-৪৯ মৌসুমে ৫ টেস্টের এক সিরিজ খেলেছিল ভারতীয় দল। ওই সিরিজে কটা সেঞ্চুরি হয়েছিল জানেন? ১৬টি! ৬৬ বছর পরেও ভারতের মাটিতে সর্বোচ্চ সেঞ্চুরির রেকর্ড এটি। তবে ২০০৯ সালের শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে সিরিজটি তিন টেস্টের না খেলে পাঁচ টেস্টের খেললেই হয়তো রেকর্ডের খাতা থেকে ওয়েস্ট ইন্ডিজ সিরিজটিকে সরে যেতে হতো। সেবার ৩ টেস্টেই যে ১৪টি সেঞ্চুরি করে ফেলেছিল দুই দল।
২০১০ সালেও ভারত-দক্ষিণ আফ্রিকা সিরিজে মাত্র ২ টেস্টে ১১টি সেঞ্চুরির দেখা মিলেছিল। সেই প্রোটিয়ারা এবার যখন খেলতে এল, সিরিজে সেঞ্চুরি-খরা! ৪ টেস্টেও কোনো সেঞ্চুরি নেই। না দক্ষিণ আফ্রিকার, না ভারতের! শেষ টেস্টে রাহানে স্রোতের বিপক্ষে না দাঁড়ালে সেঞ্চুরি-খরার এক টেস্ট সিরিজের রেকর্ড হয়ে ইতিহাসে থেকে যেত এটি।
এই সিরিজটি দুই দলের ব্যাটসম্যানই চেষ্টা করবেন ভুলে যাওয়ার জন্য। চারটি টেস্টেই রান পেতে হাপিত্যেশ করেছেন ব্যাটসম্যানরা। রাহানের জোড়া সেঞ্চুরি চূড়ান্ত লজ্জার হাত থেকে বাঁচালেও অন্য এক লজ্জার সঙ্গী হওয়া থেকে আটকাতে পারেনি সিরিজটিকে। চার কিংবা তার চেয়ে বেশি ম্যাচের সিরিজে সবচেয়ে কম সেঞ্চুরি হওয়ার রেকর্ডে তো ঢুকেছে! মাত্র দুটি সেঞ্চুরি হয়েছে এমন সিরিজ এর আগে ছিল তিনটি। ভারতের মাটিতে এবারই প্রথম ঘটল এমন ঘটনা।
অবশ্য ভারতের মাটিতে তিন টেস্টের সিরিজে একটিও সেঞ্চুরির দেখা মেলেনি এ রকম ঘটনা ঘটেছে। দুটি সিরিজই ছিল নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে। ১৯৬৯ সালের সিরিজে তবু ৯টি ফিফটি হয়েছিল। সিরিজে মোট রানও উঠেছিল ২০৭৯। কিন্তু ১৯৯৫ সালের সিরিজটা আসলেই কিছুটা ‘আধিভৌতিক’ ছিল। তিন টেস্টের সিরিজে রান উঠেছিল মোটে ১২৫৮, ফিফটিও পাঁচটি।
১৯৭৯-৮০ মৌসুমে পাকিস্তানের বিপক্ষে ৬ ম্যাচের টেস্ট সিরিজটাও আছে লজ্জাকর রেকর্ডের অংশ হয়ে। ছয় ম্যাচে পাঁচ হাজারের মতো রান উঠে​ছিল ব্যাটসম্যানদের ব্যাটে। তবে পুরো সিরিজে মাত্র ৩টি সেঞ্চুরি!

About admin

ăn dặm kiểu NhậtResponsive WordPress Themenhà cấp 4 nông thônthời trang trẻ emgiày cao gótshop giày nữdownload wordpress pluginsmẫu biệt thự đẹpepichouseáo sơ mi nữhouse beautiful