Templates by BIGtheme NET
Home / বিদেশ / নেপালে ভারতীয় বংশোদ্ভূত চার মদেশি নিহত, কারফিউ জারি

নেপালে ভারতীয় বংশোদ্ভূত চার মদেশি নিহত, কারফিউ জারি

পুলিশের গুলিতে চার মদেশির মৃত্যুকে কেন্দ্র করে উত্তাল নেপালের সাপতারি জেলা। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে কার্ফু জারি করেছে পুলিশ। মৃত চার মদেশিই ভারতীয় বংশোদ্ভূত বলে জানা গেছে। মদেশি ফ্রন্টের আন্দোলনের পিছনে নয়াদিল্লির হাত রয়েছে বলে অভিযোগ নেপাল সরকার। চার মদেশির মৃত্যুর দায় নয়াদিল্লি নেবে কিনা, এমনও প্রশ্ন তুলেছে। যদিও নেপাল সরকারের অভিযোগ অস্বীকার করেছে ভারত। এদিনের ঘটনায় দুঃখপ্রকাশ করে ভারতের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র বিকাশ স্বরূপ জানিয়েছেন, শীঘ্রই এই রাজনৈতিক সমস্যার সমাধান ঘটবে।

পুলিশ সূত্রের খবর, গত কয়েক মাস ধরেই নতুন সংবিধানসহ বিভিন্ন দাবিতে সরব হয়েছিল যুগ্ম গণতান্ত্রিক মদেশি ফ্রন্ট। তারপর রোববার মদেশি সদস্যরা সাপতারি জেলার পূর্ব-পশ্চিম হাইওয়ে অবরোধ করে। অবরোধকারীদের হটাতে পুলিশ গুলি শুরু করে। সেই গুলিতেই মৃত্যু হয় ভারতীয় বংশোদ্ভূত চার মদেশির। এরপরই এলাকায় তীব্র উত্তেজনার সৃষ্টি হয়। মদেশি সদস্যের মৃত্যুর প্রতিবাদে প্রায় আড়াই হাজার মানুষ জমায়েত হয়ে পুলিশের উপর আক্রমণ চালায়। ইট-পাথরের পাশাপাশি বঁটি, কাঠারি এবং পেট্রোল বোমা নিয়ে পুলিশের উপর আক্রমণ চালাতে শুরু করে আন্দোলনকারীরা। পরিস্থিতি সামাল দিতে এলাকায় কার্ফু জারি করে পুলিশ। মদেশি এবং পুলিশের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা এদিনই প্রথম নয়। শনিবারও পুলিশ এবং মদেশিদের মধ্যে তুমুল সংঘর্ষ হয়। ওই সংঘর্ষে ১৭ আন্দোলনকারী এবং ২৫ পুলিশকর্মী আহত হন। এর মধ্যে ৫ আন্দোলনকারী এবং ২ পুলিশের অবস্থা আশঙ্কাজনক।

নতুন সংবিধান সহ বিভিন্ন দাবিতে গত কয়েকমাস ধরেই আন্দোলন চালিয়ে যাচ্ছে যুগ্ম মদেশি ফ্রন্ট। এর ফলে প্রয়োজনীয় দ্রব্য-সামগ্রীর আমদানি-রফতানিও প্রায় বন্ধ হয়ে গেছে। জ্বালানি, ওষুধপত্র থেকে শুরু করে সব জিনিসেরই ঘাটতি দেখা দিয়েছে।
ভারতের উপর অত্যাধিক নির্ভরশীল স্থলবেষ্টিত দেশ নেপাল। যদিও এই আন্দোলনের পিছনে ভারতের হাত রয়েছে বলে নেপাল সরকারের অভিযোগ। তবে নয়াদিল্লি এই অভিযোগ অস্বীকার করেছে।

About admin

ăn dặm kiểu NhậtResponsive WordPress Themenhà cấp 4 nông thônthời trang trẻ emgiày cao gótshop giày nữdownload wordpress pluginsmẫu biệt thự đẹpepichouseáo sơ mi nữhouse beautiful