Templates by BIGtheme NET
Home / খেলাধুলা / দৃষ্টি ‘ঘরের ছেলে’দের দিকেই

দৃষ্টি ‘ঘরের ছেলে’দের দিকেই

প্রথম দুই আসরে বিদেশি খেলোয়াড়েরাই ছিলেন বেশি উজ্জ্বল। প্রথম বিপিএলে সর্বোচ্চ রান পাকিস্তানের আহমেদ শেহজাদের, ১২ ম্যাচে ৪৮৬। বাংলাদেশের খেলোয়াড়দের মধ্যে সর্বোচ্চ ২৮০ রান নিয়ে সাকিব আল হাসান ছিলেন দশে। বোলিংয়ে অবশ্য দাপট ছিল বাংলাদেশের বোলারদের। ১৭ উইকেট নিয়ে মোহাম্মদ সামির সঙ্গে যৌথভাবে শীর্ষে ছিলেন ইলিয়াস সানি।

২০১৩ বিপিএলে বাংলাদেশের ব্যাটসম্যানদের পারফরম্যান্স ছিল বলার মতোই। সর্বোচ্চ ৪৪০ করেছিলেন মুশফিকুর রহিম। বোলিংয়ে অবশ্য বিদেশিদের দাপট। প্রোটিয়া পেসার আলফনসো টমাস নিয়েছিলেন সর্বোচ্চ ২০ উইকেট। ১৮ উইকেট নিয়ে বাংলাদেশের বোলারদের মধ্যে সবচেয়ে এগিয়ে ছিলেন এনামুল হক জুনিয়র।

স্থানীয় খেলোয়াড়দের কাছে আগের দুই আসরের তুলনায় এবারের বিপিএলের তাৎপর্য ভিন্ন। আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে দারুণ একটা বছর কাটানো বাংলাদেশ দলের অধিকাংশ খেলোয়াড়ই রয়েছেন ছন্দে। বিপিএলেও তামিম-মুশফিক-সৌম্য-মুস্তাফিজেরা নিশ্চয়ই চাইবেন পারফরম্যান্সের গ্রাফটা ঊর্ধ্বমুখী রাখতে। এশিয়া কাপ ও টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের আগে নিজেদের তৈরি হওয়ার এমন সুযোগ কি আর ছাড়তে চাইবেন তাঁরা?

কাল অনুশীলনে মাশরাফি বিন মুর্তজা রসিকতার সুরেই বললেন, ‘এখন আমি ভিক্টোরিয়ান!’ হ্যাঁ, আপাতত কদিনের জন্য মাশরাফি কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ানসের অধিনায়ক। তবে বিপিএল শেষেই আবার তাঁকে ঝাঁপিয়ে পড়তে হবে লাল-সবুজের ঝাণ্ডা ওড়াতে, মাঠে দারুণ কিছু করে দেখানোর প্রত্যয়ে। বিপিএল ছাপিয়ে তাই অধিনায়কের ভাবনায় এশিয়া কাপ ও টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ। গুরুত্বপূর্ণ দুটি টুর্নামেন্টে ভালো করতে বিপিএলে স্থানীয় ক্রিকেটারদের জ্বলে ওঠার আহ্বান জানিয়েছেন মাশরাফি, ‘বাংলাদেশের খেলোয়াড়দের ওপর সবার বেশি মনোযোগ থাকবে। সামনে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ, এশিয়া কাপ। আশা করি, বেশির ভাগ স্থানীয় খেলোয়াড়ই পারফর্ম করবে। সেটা নিজেদের জন্যই ভালো হবে। এ সংস্করণে এখনো আমরা শক্তিশালী হতে পারিনি। স্থানীয় খেলোয়াড়েরা যত পারফর্ম করবে, আমাদের জন্য ততই ভালো।’

দেশি-বিদেশি ক্রিকেটার মিলিয়ে ভারসাম্যপূর্ণ একটা দলই হয়েছে চট্টগ্রাম ভাইকিংসের। তবে অধিনায়ক তামিম মনে করেন, দলের সাফল্য অনেকটা নির্ভর করছে স্থানীয় খেলোয়াড়দের পারফরম্যান্সের ওপর, ‘স্থানীয় খেলোয়াড়েরা মূল ভূমিকা পালন করবে। বিদেশিরা হয়তো সহায়তা করবে। তবে আমাদের সাফল্য নির্ভর করবে স্থানীয় খেলোয়াড়দের ওপরই।’

মাহমুদউল্লাহও একমত তামিমের সঙ্গে। বিপিএলকে আরও উন্নত করতে স্থানীয়দের দুর্দান্ত খেলার বিকল্প দেখেন না বরিশাল বুলসের অধিনায়ক, ‘কেবল আমার দল নয়, সব দলেই স্থানীয় খেলোয়াড়দের পারফর্ম করতে হবে। তাতে বিপিএল আরও উন্নত হবে। সেটি আমাদের ক্রিকেটের জন্যও ভালো হবে। যদিও অনেক বিদেশি খেলোয়াড় আসবে, তাদের সঙ্গে খেলাটা উপভোগ্য হবে। তবে স্থানীয় খেলোয়াড়েরা ভালো করলে টুর্নামেন্টটা হবে দারুণ।’

About admin

ăn dặm kiểu NhậtResponsive WordPress Themenhà cấp 4 nông thônthời trang trẻ emgiày cao gótshop giày nữdownload wordpress pluginsmẫu biệt thự đẹpepichouseáo sơ mi nữhouse beautiful