Templates by BIGtheme NET
Home / সারাদেশ / জন্ম-মৃত্যুর নিবন্ধনে জাতি কী সঠিক তথ্য পাচ্ছে!

জন্ম-মৃত্যুর নিবন্ধনে জাতি কী সঠিক তথ্য পাচ্ছে!

জন্ম নিবন্ধনের মতো মৃত্যুর সঠিক নিবন্ধীকরণ ও জন্ম-মৃত্যু নিবন্ধন আইন যথাযথভাবে বাস্তাবায়নের দাবি জানানো হয়েছে। আজ সোমবার সকাল ১০টায় বেসরকারি সংগঠন ‘সংকল্প ট্রাস্টের’ সেমিনার কক্ষে নারীপক্ষের সার্বিক সহযোগিতা ও সংকল্প ট্রাস্টের বাস্তবায়নে ‘প্রসূতি মৃত্যু নিবন্ধন প্রক্রিয়া শক্তিশালীকরণ’ শীর্ষক কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয়। এতে আলোচনায় প্রশ্ন উঠে আসে জাতি সঠিক তথ্য পাচ্ছে কিনা- তা নিয়ে।

পাথরঘাটা প্রেসক্লাবের সাংবাদিক, নারীস্বাস্থ্য অধিকার আন্দোলন জোটের নেতৃবৃন্দ ও সংকল্প ট্রাস্টের কর্মকর্তারা কর্মশালায় উপস্থিত ছিলেন। এতে সঞ্চালনা করেন সংকল্প ট্রাস্টের পরিচালক (প্রকল্প) মনিরুজ্জামান হিরু। সংকল্প ট্রাস্টের নির্বাহী পরিচালক মির্জা শহিদুল ইসলাম খালেদ বলেন, “জন্ম নিবন্ধন বিষয়টি সমগ্র দেশে যেভাবে সারা মিলেছে এবং এ নিয়ে আগ্রহ দেখা যায়, ঠিক তার উল্টো চিত্র দেখা যায় মৃত্যু নিবন্ধনের ক্ষেত্রে। প্রসূতি মৃত্যুর নিবন্ধন আরো হতাশাজনক।

ইতিপূর্বে বরিশাল বিভাগের পাঁচটি জেলার বিভিন্ন ইউনিয়নে ১১১ মৃত্যুর ঘটনার ওপর  পরিচালিত নারীপক্ষ’র এক গবেষণা প্রতিবেদনের বরাত দিয়ে তিনি বলেন, “১১১টি মৃত্যুর মধ্যে ৫৪টি (৪৮.৬৪ %) মৃত্যুর তথ্য সংশ্লিষ্ট ইউনিয়ন পরিষদে পাওয়া যায়নি। প্রসূতি মৃত্যুর নিবন্ধনের সরকারি পরিসংখ্যানের সঙ্গে বাস্তবের বেশ গড়মিল। অনেক প্রসূতি মৃত্যুর তথ্য নিবন্ধনকারী কর্তৃপক্ষের নিকট যাননি। নিয়ম ভঙ্গকারীদের বিরুদ্ধে আইন অনুযায়ী শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নিতে দেখা যায়নি।

সাংবাদিক ও স্থানীয় সরকার বিষয়ে গবেষক শফিকুল ইসলাম খোকন বলেন, “শুধু আইন করলেই হবে না’ তা বাস্তবায়নে সরকারকে মনোযোগী হতে হবে। এ ক্ষেত্রে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষর আন্তরিকতার বিকল্প নেই। তিনি বলেন, “ইউনিয়ন পরিষদ, পৌর পরিষদসহ সংশ্লিষ্ট  কর্তৃপক্ষের সমন্বয়হীনতা ও জবাবদিহিতা না থাকায় প্রসূতি মৃত্যুর  নিবন্ধন সঠিকভাবে বাস্তবায়ন হয় না।

উপজেলা নারী স্বাস্থ্য অধিকার আন্দোলন জোটের সভানেত্রী মুনিরা ইয়াসমিন খুশি বলেন, “প্রসবজনিত মৃত্যু নিবন্ধন না হওয়া নারীর  বৈষম্যের একটি অংশ। সংকল্প ট্রাস্টের পরিচালক (ঋণ কার্যক্রম) মো. আবদুর রহিম বলেন, “মাতৃমৃত্যুর নিবন্ধনের জন্য তৃণমুল পর্যায় উঠান বৈঠক, প্রচার-প্রচারণা করা হলে মানুষ অনেক সচেতন হবে” ।

পাথরঘাটা প্রেসক্লাবের সভাপতি আমিনুল হক বলেন, মৃত্যু নিবন্ধন না করায় যে শাস্তির বিধান রয়েছে তা সত্যিকার অর্থে অনেকেই জানে না। আইনটি বাস্তবায়নের ক্ষেত্রে সরকারসহ সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে আন্তরিক হওয়ার আহ্বান জানান।

কর্মশালায় বক্তারা প্রশ্ন তোলেন, মৃত্যু নিবন্ধন বিশেষ করে প্রসূতি মৃত্যু নিবন্ধন বিষয়ে জাতি সঠিক তথ্য পাচ্ছে কিনা- তা নিয়ে। মৃত্যু  নিবন্ধনসহ প্রসূতি মৃত্যু নিবন্ধনে গলদ থাকলে সরকারের পরিসংখ্যানে  ক্রটি থেকে যাবে, সাসটেইনেবল ডেভলপমেন্ট গোল বাস্তবায়নের প্রকৃত চিত্র পাওয়া যাবে না বলে উল্লেখ করেন বক্তারা।

About admin

ăn dặm kiểu NhậtResponsive WordPress Themenhà cấp 4 nông thônthời trang trẻ emgiày cao gótshop giày nữdownload wordpress pluginsmẫu biệt thự đẹpepichouseáo sơ mi nữhouse beautiful