Templates by BIGtheme NET
Home / জাতীয় / গভর্নরের বিরুদ্ধে প্রধানমন্ত্রীর কাছে অর্থমন্ত্রীর নালিশ

গভর্নরের বিরুদ্ধে প্রধানমন্ত্রীর কাছে অর্থমন্ত্রীর নালিশ

রিজার্ভের অর্থ চুরির ঘটনায় বাংলাদেশ ব্যাংকের গভর্নরের বিরুদ্ধে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছে নালিশ করেছেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত।

সোমবার মন্ত্রিসভার বৈঠকের শুরুতে এ নালিশ করেন অর্থমন্ত্রী।

সচিবালয়ে প্রধানমন্ত্রীর সভাপতিত্বে মন্ত্রিসভার বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। বৈঠকে উপস্থিত একজন মন্ত্রী নাম প্রকাশ না করার শর্তে দ্য রিপোর্ট টুয়েন্টিফোর ডটকমকে এ তথ্য জানান।

ওই মন্ত্রী বলেন, ‘বৈঠকের শুরুতে অর্থমন্ত্রী প্রধানমন্ত্রীর কাছে গিয়ে রিজার্ভের অর্থ চুরির বিষয়টি উত্থাপন করেন। প্রধানমন্ত্রীকে তিনি (অর্থমন্ত্রী) বলেন, অর্থ চুরির বিষয়টি বাংলাদেশ ব্যাংকের কেউ আমাকে জানায়নি। এর মধ্যে তাদের (বাংলাদেশ ব্যাংক) সঙ্গে আমার মিটিং হয়েছে। তারপরও তারা আমাকে কিছুই বলেনি।’

পাঞ্জাবী পরিহিত অর্থমন্ত্রীকে এ সময় বেশ রাগান্বিত দেখায়। তবে অর্থমন্ত্রীর নালিশের জবাবে প্রধানমন্ত্রী কিছু বলেননি বলে তথ্য দেওয়া ওই মন্ত্রী জানিয়েছেন।

প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে কথা বলার সময় সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের তার আসন থেকে অর্থমন্ত্রীকে বলেন, ‘পাঞ্জাবীতে আপনাকে সুন্দর লাগছে।’ অর্থমন্ত্রী ওবায়দুল কাদেরের কথা শুনতে পাননি।

তখন বাণিজ্যমন্ত্রী অর্থমন্ত্রীর দৃষ্টি আকর্ষণ করে বলেন, ‘কাদের (ওবায়দুল কাদের) বলেছে পাঞ্জাবীতে আপনাকে সুন্দর লাগছে।’
এটা শুনে ধন্যবাদ জানিয়ে স্বাভাবিক হয়ে হেসে ফেলেন অর্থমন্ত্রী।

মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ থেকে জানা গেছে, মন্ত্রিসভার বৈঠকের টেবিলটি পূর্ব-পশ্চিম দিকে পাতানো। দু’পাশে মন্ত্রিসভার সদস্যরা বসেন। টেবিলের পূর্বপ্রান্তে বসে বৈঠকে সভাপতিত্ব করেন প্রধানমন্ত্রী। মন্ত্রিসভার বৈঠকের আসন বিন্যাসে প্রধানমন্ত্রীর ডান পাশে শুরুতেই বসেন অর্থমন্ত্রী মুহিত, এরপর বসেন বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ।

সোমবারের বৈঠকের ছবিতে ওবায়দুল কাদেরকে টেবিলের বাম দিকের ছয় নম্বর আসনে বসতে দেখা গেছে।
গত ৫ ফেব্রুয়ারি যুক্তরাষ্ট্রের ব্যাংক থেকে লেনদেনের সুইফট (সোসাইটি ফর ওয়ার্ল্ডওয়াইড ইন্টারব্যাংক ফিন্যান্সিয়াল টেলিকমিউনিকেশন-এসডব্লিউআইএফটি) কোড জালিয়াতির মাধ্যমে বাংলাদেশের রিজার্ভের ১০ কোটি ১০ লাখ মার্কিন ডলার (প্রায় ৮০০ কোটি টাকা) চুরি হয়ে চলে যায় শ্রীলঙ্কা ও ফিলিপাইনে। তবে অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত ও ব্যাংকিং সচিব এম আসলাম আলম তা জানতে পারেন মার্চের প্রথম সপ্তাহে।

আন্তর্জাতিক মুদ্রা তহবিলের একটি সম্মেলনে অংশ নিতে গত ১০ মার্চ ভারত যান বাংলাদেশ ব্যাংকের গভর্নর ড. আতিউর রহমান। সোমবার (১৪ মার্চ) তার দেশে ফেরার কথা রয়েছে।

গভর্নর ভারত থেকে ফিরে পদত্যাগ করতে পারেন বলে মন্ত্রিসভার সদস্যদের মধ্যে সোমবার গুঞ্জণ ছিল।

About Tareq Hossain

ăn dặm kiểu NhậtResponsive WordPress Themenhà cấp 4 nông thônthời trang trẻ emgiày cao gótshop giày nữdownload wordpress pluginsmẫu biệt thự đẹpepichouseáo sơ mi nữhouse beautiful