Templates by BIGtheme NET
Home / স্বাস্থ্য / ওষুধ ছাড়াই দূর করুন উটকো মাথাব্যাথা

ওষুধ ছাড়াই দূর করুন উটকো মাথাব্যাথা

বলা নেই কওয়া নেই- হঠাৎ করেই মাথাব্যাথা শুরু হয়ে যাওয়া ভীষণ বিরক্তিকর ব্যাপার। মাথাব্যাথার সহজ প্রতিকার হিসেবে আমরা টপাটপ পেইনকিলার খেতেই অভ্যস্ত। কিন্তু শরীরের জন্য আদতে ক্ষতিকর এসব ওষুধ না খেয়ে যদি সাধারণ কিছু খাবার খেয়েই মাথাব্যাথা দূর করা যায়, তাহলে কেমন হয়?

পেইন কিলার খেতে যারা অভ্যস্ত, তারা জেনে রাখুন অতিরিক্ত পেইন কিলার খেলে একটা সময় আপনার শরীরে এর ক্ষতি ফুটে উঠতে থাকবে। আর যারা পেইন কিলারের থেকে দূরে থাকতে চান, তাদের জেনে রাখা ভালো মাথাব্যাথা কমানোর এসব খাবারের গুণ। এখন থেকে মাথা ব্যাথা করলে নির্দ্বিধায় খেয়ে নিতে পারেন এগুলো।

বেক করা আলু

পটাশিয়াম এমন একটা খনিজ যা মাথাব্যাথা প্রাকৃতিকভাবে কমায়। পটাশিয়ামের খুব ভালো একটা উৎস হলো বেক করা আলু, খোসাসহ। মাথাব্যাথার সময়ে এটা খেলে আর পেইন কিলারের দরকার হবে না।

কলা

কলাতে শুধু পটাশিয়াম না, বরং ম্যাগনেশিয়ামও থাকে অনেকটা। মাথাব্যাথা কমানোর পাশাপাশি এটা আপনাকে শান্ত করতে সাহায্য করবে।

তরমুজ

মাথাব্যাথার অন্যতম বড় একটি কারণ হলো শরীরে পানির অভাব। পানির অভাব হলে পেইন কিলার খেলে আসলে তেমন লাভ হয় না। এর বদলে পানিতে ভরপুর ফল, যেমন তরমুজ খাওয়াটা উপকারে আসবে। এর পাশাপাশি তরমুজে থাকা পটাশিয়াম এবং ম্যাগনেশিয়ামও আপনার মাথাব্যাথা কমিয়ে দেবে।

আনারস

তাজা আনারসও আপনার উপকারে আসতে পারে। আনারসে আছে ব্রোমেলাইন নামের এক ধরণের এনজাইম। এটা প্রাকৃতিক পেইন কিলারের মতো কাজ করে।

শসা

শসাতেও প্রচুর পানি থাকে, ফলে এটি তরমুজের মতোই কাজ করে মাথাব্যাথা কমাতে।

কফি

অতিরিক্ত কফি পান করলে মাথাব্যাথা কমবে না, বরং বাড়বে। কিন্তু পরিমিত পরিমাণে কফি পান মাথাব্যাথা দূর করতে চমৎকার কাজ করে। এক কাপ কফি হঠাৎ মাথাব্যাথা কমাতে সাহায্য করে। কিন্তু সারাদিন ধরে কফি পানে আপনার উপকারের বদলে ক্ষতিই হবার সম্ভাবনা।

 

About admin

ăn dặm kiểu NhậtResponsive WordPress Themenhà cấp 4 nông thônthời trang trẻ emgiày cao gótshop giày nữdownload wordpress pluginsmẫu biệt thự đẹpepichouseáo sơ mi nữhouse beautiful