Templates by BIGtheme NET
Home / খেলাধুলা / আনন্দ আর অসামঞ্জস্যয় বিপিএলের উদ্বোধন

আনন্দ আর অসামঞ্জস্যয় বিপিএলের উদ্বোধন

বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগের তৃতীয় আসরের উদ্বোধন করা হলো নাচ-গানের মধ্য দিয়ে। তবে উদ্বোধন অনুষ্ঠানে নানা রকমের অসামঞ্জস্য ও বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি হয়েছে যার ভুক্তভোগী সাধারণ দর্শক।

বিপিএলের উদ্বোধনী আয়োজন আগেরবারের মতোই ছিল প্রশ্নবিদ্ধ। মাঠে ঢুকতে ব্যাপক হয়রানির শিকার হতে হয় দর্শকদের। বিকেল ৪টায় উদ্বোধনী অনুষ্ঠান শুরু হওয়ার কথা থাকলেও তা শুরু হয় সাড়ে ৫টায়। অবশ্য এটিকে উদ্বোধনী অনুষ্ঠান না বলে ‘উদ্বোধনী কনসার্ট’ বলাই ভালো। অনুষ্ঠান বলতে তো হয়েছে কেবল নাচ-গানই! আর ফাঁকে ফাঁকে খানিকটা আতশবাজি।

শুক্রবার রাত ৮টায় আনুষ্ঠানিকভাবে বিপিএলের উদ্বোধন ঘোষণা করেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আব্দুল মুহিত। স্বাগত বক্তব্য দেন বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের প্রধান নাজমুল হাসান।

উদ্বোধন ঘোষণার পর আসরের ছয় দলের অধিনায়ককে মঞ্চে ডাকা হয়। তবে রংপুর রাইডার্সের অধিনায়ক সাকিব আল হাসান না থাকায় তার জায়গায় আসেন সৌম্য সরকার।

অনুষ্ঠান শুরু হয়েছিল নৃত্যশিল্পী সাদিয়া ইসলাম মৌয়ের নাচ দিয়ে। এরপর মঞ্চে ওঠেন আইয়ুব বাচ্চু, জনপ্রিয় কিছু গান শোনান তিনি। এলআরবির পরিবেশনা শেষে খানিকটা ভিন্ন স্বাদ দেয়া হয় বড় পর্দায় বিপিএলের গত দুই আসরের কিছু ভিডিও ক্লিপিংস দেখিয়ে।

এরপর মঞ্চে ওঠে হালের জনপ্রিয় ব্যান্ড চিরকূট। তারাও নিজেদের জনপ্রিয় কয়েকটি গান শোনান। দর্শকের তুমুল উল্লাসের মাঝে পরে মঞ্চে ওঠেন মমতাজ। এরপরই আসে উদ্বোধনের আনুষ্ঠানিক ঘোষণা।

উদ্বোধন ঘোষণার পর মঞ্চে ওঠেন ভারতের গায়ক কৃষ্ণকুমার কুন্নাথ, যিনি তুমল জনপ্রিয় কে কে নামে। তার পরিবেশনার পরই মঞ্চে ওঠেন বলিউড তারকা জ্যাকুলিন ফার্নান্দেজ ও হৃত্বিক রোশান। তারা নাচ গানে মাতিয়ে রাখার পর আতশবাজি পোড়ানোর মধ্য দিয়ে শেষ হয় তৃতীয় আসরের উদ্বোধনী অনুষ্ঠান।

মাঠে ঢুকতে ভোগান্তি পোহাতে হয় অনেক দর্শককে। টিকেটে লেখা থাকা গেট নম্বর অনুযায়ী মাঠে ঢুকতে পেরেছেন কম দর্শকই। নিরাপত্তাকর্মীদের সমন্বয়হীনতায় এক গেট থেকে আরেক গেটে ছুটোছুটি করতে হয়েছে দর্শকদের।

সন্ধ্যা ৭টায় স্টেডিয়ামের বাইরে গিয়ে দেখা যায়, শত শত দর্শক টিকেট নিয়েও মাঠে ঢুকতে পারছিলেন না, কারণ সব গেট ছিল বন্ধ। মূল গেট, অর্থাৎ ২ নম্বর গেট ছাড়া ১ নম্বর বা ৩ নম্বর গেটে দায়িত্বপ্রাপ্ত কাউতে খুঁজেও পাওয়া যায়নি গেট খুলে দেয়ার জন্য। ৪ নম্বর গেট দিয়ে অবশ্য কিছু দর্শক মাঠে ঢুকেছে।

সন্ধ্যা সাড়ে ৭টায় টিকেটধারী কিছু দর্শক হুড়োহুড়ি করে মাঠে ঢুকতে চাইলে গেটের নিরাপত্তাকর্মীদের হাতে ব্যাপক মারধরের শিকার হন। গেটে থাকা পুলিশ সদস্য ও অন্যান্য নিরাপত্তা কর্মীদের কেউ এ ব্যাপারে কথা বলতে রাজি হননি।

১০ হাজার টাকার গোল্ড টিকেট হাতে নিয়ে ভেতরে প্রবেশের জন্য চেঁচিয়ে যাচ্ছিলেন অনেকে। কিন্তু তাদের কেউ কথা শোনার ছিল না।

About admin

ăn dặm kiểu NhậtResponsive WordPress Themenhà cấp 4 nông thônthời trang trẻ emgiày cao gótshop giày nữdownload wordpress pluginsmẫu biệt thự đẹpepichouseáo sơ mi nữhouse beautiful